আবাসিক হোটেলে নিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ! সীতাকুণ্ড শিক্ষক আটক

0
.

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ 

ফুসলিয়ে আবাসিক হোটেলে নিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে সীতাকুণ্ডে এক স্কুল শিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় আজ শনিবার সন্ধ্যায় ধর্ষিতা ঐ ছাত্রী বাদী হয়ে সীতাকুণ্ড মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম মো. তারেক হোসেন। তিনি উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের জহির আহমেদের পুত্র।

মামলা সুত্রে জানাযায়, সীতাকুণ্ড বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ধর্ম বিষয়ক শিক্ষক তারেক হোসেন দীর্ঘদিন ধরে একই স্কুলের দশম শ্রেণীর ওই ছাত্রীকে (১৬) বিভিন্নভাবে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল।

এরই ধারাবাহিকতায় গত জুলাই মাসে শিক্ষক তারেক ফুসলিয়ে বিয়ের কথা বলে ছাত্রীকে চট্টগ্রাম নগরীর ফয়’জ লেক এলাকার একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করেন। কিছুদিন পর ছাত্রীটি বিয়ের কথা বললে শিক্ষক নানাভাবে তালবাহানা শুরু করেন।

আজ শনিবার সন্ধ্যায় ধর্ষিতা ছাত্রীটি পরিবারের লোকজন নিয়ে থানায় গিয়ে তারেকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ রাতে উপজেলার মুরাদপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে আসামী শিক্ষক তারেক হোসেনকে আটক করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি (অপারেশন) আবুল কালাম পাঠক ডট নিউজকে বলেন, মেয়েটি সীতাকুণ্ড বালিকা স্কুলের দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী এবং ধর্ষক তারেকও একই স্কুলের ধর্ম বিষয়ের শিক্ষক। ছাত্রীর মামলার প্রেক্ষিতে আমরা ধর্ষন মামলার আসামী তারেক হোসেনকে গ্রেফতার করেছি।

কোন মন্তব্য নেই