৪র্থ সমাবর্তনের জন্য প্রস্তুুত চুয়েটঃ আসছেন রাষ্ট্রপতি

0
.

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এর ৪র্থ সমাবর্তন আগামী ৫ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ উপলক্ষ্যে ক্যাম্পাসজুড়ে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।

রাষ্ট্রপতি এবং চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর মোঃ আবদুল হামিদ সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন।

অনুষ্ঠানে সমাবর্তন বক্তা হিসেবে থাকবেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এ.কে. আজাদ চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ।

৪র্থ সমাবর্তন ও সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটি-২০১৯ এর স্টিয়ারিং কমিটির সভাপতি ও ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম জানান, এবারের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রায় ২৫০০ ছাত্র-ছাত্রীদেরকে সমাবর্তন ডিগ্রী প্রদান করা হবে। সমাবর্তন সম্পন্ন করতে ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে।

ইতোমধ্যে সমাবর্তন অনুষ্ঠান আয়োজনের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে চুয়েট প্রশাসন। রাষ্ট্রপতি হেলিকপ্টারযোগে সরাসরি চুয়েট ক্যাম্পাসে পৌছবেন। এ লক্ষ্যে চুয়েটের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে চুয়েট ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে একাধিক হেলিপ্যাড তৈরি করা হয়েছে। গত ২৭ নভেম্বর নির্মিত হেলিপ্যাড হেলিকপ্টার মহড়া অনুষ্ঠিত হয়।

সে সময় ৪র্থ সমাবর্তন-২০১৯ এর স্টিয়ারিং কমিটির সভাপতি ও চুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম এবং নির্বাহী কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. সাইফুল ইসলাম ও সমাবর্তন আয়োজন সংশ্লিষ্টরা হেলিকপ্টার অবতরণস্থলে উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া চুয়েটের গৌরবময় পথচলার ৫০ বছর পূর্তিকে স্মরণীয় করে রাখতে আগামী ৬ ডিসেম্বর, দিনব্যাপী বিশ্ববিদ্যালয়ের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করা হবে।

সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে দেশ-বিদেশের ভিভিআইপি মন্ত্রী পরিষদ সদস্যগণ, এমপি, বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, অত্র প্রতিষ্ঠান থেকে পাশ তরা বিপুল প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী, চুয়েট পরিবারের বর্তমান সদস্যগণ মিলে প্রায় ১০ হাজার লোকের মিলনমেলা বসবে।

সুবর্ণজয়ন্তীর জমকালো আয়োজনে থাকবে- আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্র থেকে নগরজুড়ে আনন্দ র‌্যালি, সন্ধ্যায় আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, রাতে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবান, আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্র থেকে চুয়েট ক্যাম্পাসে যাত্রা, উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা, স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান, চুয়েটের বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আমন্ত্রিত শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা, নৈশভোজ, ফায়ারওয়ার্কস, জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী জেমস ও নগর বাউলের জমজমাট কনসার্ট প্রভৃতি।

* চুয়েটের ৪র্থ সমাবর্তন ও সুবর্ণজয়ন্তী ৫ও ৬ ডিসেম্বর

 

কোন মন্তব্য নেই